প্রথম পৃষ্ঠা সাম্প্রতিক

সাম্প্রতিক

অব্যাহত শিক্ষা

ইন্টার্নশিপ হতে পারে সমাজ বদলের হাতিয়ার

আমি আমার নিজের অভিজ্ঞতা থেকে বুঝতে পারি যে, একজন শিক্ষার্থী যখন বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ করে তখন তার মাঝে দেশপ্রেমের নেশা প্রবল হয়ে দেখা দেয়। আমরা যখন বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ করি, তখন কতো চিন্তা মাথায় ভর করতো তার ইয়াত্তা নেই। মনে হতো এই এডুকেশন সিস্টেম পাল্টাতে হবে, এটা করতে হবে, ওটা করতে হবে। এরপর যখন প্র্যাকটিস টিচিং-এ গেলাম, তখন কত স্বপ্ন মাথায় ভর করতো। রাত জেগে জেগে শিক্ষার্থীদের জন্য পাঠ পরিকল্পনা করা, উপকরণ তৈরি করাতে মত্ত হয়ে পড়তাম। এটা-ওটা ঘেটে তাদের জন্য লেকচার তৈরি করতাম। আর সেই আমরাই যখন কর্মজীবনে প্রবেশ করি তখন হয়ত কাজের চাপে আর নানান চাপে এ কাজ আর করা হয় না। তখন দায়সারাভাবে ক্লাশ নিতে পারলেই বাঁচি।
বাংলাদেশের শিক্ষা - ছোট

প্রশ্নপত্র ক্রয়ে বাধানিষেধ ও সৃজনশীলতা

পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র প্রণয়ন ও মডারেশনে শিক্ষকদের সঙ্কট প্রকট। পরিস্থিতি এমন যে, এসএসসির প্রি-টেস্ট ও টেস্ট পরীক্ষার প্রশ্ন পর্যন্ত বোর্ড থেকে করে দিতে হয়েছে কারণ অনেক স্কুল তা করতে পারেনি। শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা বজায় রাখা, শিক্ষকতা পেশায় মেধাবীদের আকৃষ্ট করার প্রচেষ্টা গ্রহণ করা সরকারের দায়িত্ব। এ দায়িত্ব সরকারকে কঠোরভাবে পালন করতে হবে। কোনো ধরনের তদবির বা নিয়ম-বহির্ভূত কাজ করা যাবে না। এসব কারণেই শিক্ষকতা পেশার এই হাল হয়েছে। এ পেশার করুণ দশার জন্য আমরা কাকে দোষারোপ করব? শিক্ষকদের? না আমাদের ব্যবস্থাকে?
বাংলাদেশের শিক্ষা - ছোট

স্কুল মাঠে খেলা: এক অপার আনন্দ‍

বিদ্যালয়টিতে যখন পৌঁছলাম, তখনও ঠিক দুপুর হয় নি। একদল ছেলেমেয়ে খেলবে, কিন্তু তাদের কাছে কোনো বল নেই। নেই খেলার অন্য কোনো উপকরণও। তাই বলে কি স্কুলে খেলাধুলা বন্ধ থাকে? স্কুলে খেলা তো পড়ালেখারই একটি অংশ। হাত ও পায়ের কৌশল অবলম্বন করেই তারা নেমে পড়লে স্কুল-সংলগ্ন মাঠটিতে। আমাদের দেখে যেন উৎসাহ পেল তারা- তবে মেয়েরা বিরত রইলো খেলা থেকে।
পরীক্ষা; ছবি কৃতজ্ঞতা: সময়ের কণ্ঠস্বর

ছাত্রজীবন সুখের জীবন, যদি না থাকে এক্সামিনেশন

শিক্ষার্থীরা সাধারণত যে পরীক্ষাগুলোর কথা শুনলে ভয় পায় তা হলো, দুইটি সাময়িক পরীক্ষা এবং একটি বার্ষিক অথবা সমাপনী পরীক্ষা। এই ভয় শুধু যে স্কুল-কলেজে ছিল তাই না, বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে এসেও দেখতে পাই ইনকোর্সের ভয়ে আমরা ভীত থাকতাম। একটি শিক্ষা কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে চলছে কিনা, এর উদ্দেশ্য কতটা সফল হলো, তা জানার যখন আরও অনেক ধরন (বাড়ির কাজ, শ্রেণির কাজ, মৌখিক প্রশ্ন-উত্তর, ব্যবহারিক কাজ) আছে; তবে এই পরীক্ষা নামক জুজুর ভয় কেন আমাদের পোহাতে হবে?
বাংলাদেশের শিক্ষা - ছোট

উচ্চশিক্ষায় গবেষণার গুরুত্ব

বাংলাদেশের বর্তমান শিক্ষাব্যবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে একথা বলা অত্যুক্তি হবে না যে, প্রাচ্য ও প্রতীচ্যের উন্নত দেশগুলির শিক্ষাব্যবস্থা যতখানি অগ্রসর, বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থা ততখানি অগ্রসর নয়। একথাও অস্বীকার করা যায় না যে, এসব উন্নত দেশের শিক্ষাব্যবস্থা অনুকরণ করে আমাদের দেশের শিক্ষাব্যবস্থা উন্নত করা আদৌ সম্ভবপর নয়। কেনোনা, আমাদের দেশের সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক অবস্থা অথবা ভৌগোলিক অবস্থান কোনোটাই ওসব দেশের সমপর্যায়ভুক্ত নয়। কাজেই আমাদের শিক্ষাব্যবস্থা কীরকম হওয়া উচিত তা শুধু অনুমান করে বললেই চলবে না। এর জন্য প্রয়োজন ব্যাপক গবেষণা কর্মসূচি।
নৌকায় বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়া

এই শিক্ষার্থীদের দাবায়ে রাখা সম্ভব?

বর্ষাকাল যেহেতু, যাওয়া-আসার উপায় সীমিত। অভিভাবকরা সবাই মিলে চাঁদা তুলে ব্যবস্থা করে দেন একটি নৌকার। নৌকাটি কয়েকটি গ্রাম ঘুরে একবারে অনেক শিক্ষার্থীকে বিদ্যালয়ে নিয়ে আসে, ক্লাস শেষে নিয়ে যায়। প্রবল বৃষ্টির দিনে তাও সম্ভব হয় না। সমস্ত বাধাবিপত্তি স্বীকার করে যেসব শিশুকিশোর এসেছে বিদ্যালয়ে- পড়ালেখার আকাঙ্ক্ষায়, তাদেরকে কি কোনো প্রতিকূলতা দাবায়ে রাখতে পারে?
বাংলাদেশের শিক্ষা - ছোট

শিক্ষার্থীদেরকে দিয়ে ক্লাস নেওয়ানো: একটি প্রস্তাবনা

বাংলাদেশের মতো বৃহৎ শিক্ষাব্যবস্থা যেখানে, সেখানে উপযুক্ত শিক্ষকের প্রয়োজনীয়তা ও পর্যাপ্ত শিক্ষকের অভাব বরাবরের মতো চলে এসেছে, সেখানে শিক্ষার্থীকে শ্রেণি-কার্যক্রমে শিক্ষকের পাশাপাশি কাজে লাগানো ফলপ্রসু হওয়া বেশ সম্ভাবনাময় । সেক্ষেত্রে বর্তমান ও সাবেক শিক্ষার্থীদের মধ্যে যারা উপযুক্ত তাদের দিয়ে বিভিন্ন বিষয়ের ক্লাস নেওয়ানোর সংস্কৃতি প্রবর্তন করার উদ্যোগ গ্রহণ করা যেতে পারে। এক্ষেত্রে প্রতিটি বিদ্যালয়ে সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের একটি প্যানেল তৈরি করা যেতে পারে।
বাংলাদেশের শিক্ষা - ছোট

‘শুদ্ধস্বর-বাংলাদেশের শিক্ষা’ ত্রৈমাসিক সেরা লেখা পুরস্কার: অক্টোবর-ডিসেম্বর ২০১৪ প্রান্তিকের সেরা লেখা- ‘লিডারশিপ ও শিক্ষা:...

শুধু কয়েকদিনের নেতৃত্বের প্রশিক্ষণ দিয়েই ছেড়ে দিলে হবে না, নেতৃত্ব চর্চার ক্ষেত্র এবং সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে। আর এটি সম্ভব শিক্ষার মাধ্যমে।

নির্বাচিত প্রবন্ধ

জনপ্রিয় নিবন্ধ

সর্বোচ্চ মন্তব্যকৃত নিবন্ধ